ধৈর্য ধরুন, বেশি বেশি দোআ ও কান্নাকাটি করুন
আমরা যখন ভাস্কর্যের ভয়াবহ পরিণতির কথা বলছি এবং কোরআন-সুন্নাহ থেকে স্পষ্ট দলিল প্রমাণ পেশ করছি তখন কোন ধরনের উস্কানি ছাড়াই রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের জন্য সরকার দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।
নৈতিক দাবির বিরুদ্ধে পেশিশক্তি ও রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করছে। ক্ষমতায় থাকার জন্য এতদিন মানুষের অধিকার নিয়ন্ত্রণ করেছে এখন সরাসরি ধর্ম নিয়ন্ত্রণ করার পায়তারা করছে। মূর্তি ও ভাস্কর্য নিয়ে ওলামাদের স্পষ্ট বক্তব্যের পরেও বিষয়টিকে বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে আবেগ ও উন্মাদনা সৃষ্টির হীন চেষ্টা চালাচ্ছে।
এহেন পরিস্থিতিতে মুরুব্বী ওলামাদের নির্দেশ আসা পর্যন্ত দেশের মানুষকে ধৈর্য ধারণ করতে হবে এবং আল্লাহ তাবারক তাআলার দরবারে বেশি বেশি দোআ কান্নাকাটি চালিয়ে যেতে হবে। হিম্মত রাখতে হবে যে, এখন পর্যন্ত কোন শক্তি একত্ববাদীদের ধ্বংস করতে পারেনি; কেয়ামত পর্যন্ত পারবে না।
আর মনে রাখতে হবে, সরকার ও সরকারি দল এবং সরকারি দলের অঙ্গসংগঠন সমূহের নানা গুরুত্বপূর্ণ জায়গা দখল করে আছে পৌত্তলিক ও বস্তুবাদীরা। বঙ্গবন্ধুর প্রতি মানুষের ভক্তি ও আবেগকে ব্যবহার করে সরকারি দলের লোকদের উস্কে দিয়ে তারাই মূলত মুসলিম দেশের পরিচয় বদলে দিতে চাইছে। আঘাত হানতে চাইছে তাওহীদের দুর্গে। তাই দলমত নির্বিশেষে মাঠ পর্যায়ের সকল বিশ্বাসী ও একত্ববাদীদের সঙ্গে নিয়েই মূর্তি সংস্কৃতি রুখে দিতে হবে।
-মুহতারাম, Mufti Sakhawat Hossain Razi  সাহেব এর ফেসবুক টাইমলাইন থেকে

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here