মুফতী সাখাওয়াত হোসাইন রাজী

সম্মানিত খতীব সাহেবগণ! আগামীকাল জুমার বয়ানে ন্যায় ও ইনসাফ প্রতিষ্ঠায় ইসলামী আইনের গুরুত্ব এবং অপরাধ দমনে ইসলামী আইন ও প্রচলিত আইনের মধ্যে তুলনামূলক পার্থক্য নিয়ে আলোচনা করুন। ইসলামী আইন অপরাধ দমনে ও অপরাধ প্রবণতা কমিয়ে আনতে কতটা কার্যকর তার ব্যাখ্যা করুন। আর কোরআন সুন্নাহর আইন তথা শরয়ী আইন আমাদের জন্য মেনে চলা ফরয, এ বিষয় নিয়েও যৌক্তিক বয়ান উপস্থাপন করবেন।

কেননা, কুরআনে কারীমে স্পষ্ট উল্লেখ আছে, وَمَنْ لَمْ يَحْكُمْ بِمَا أَنْزَلَ اللهُ فَأُوْلَئِكَ هُمُ الْكَافِرُوْنَ “যারা আল্লাহর নাযিলকৃত বিধান অনুযায়ী বিচার বা শাসন করে না; বরং অস্বীকার করে, তারা কাফের” (সূরা মায়িদা, আয়াত : ৪৪) “তারা জালেম” (সূরা মায়িদা, আয়াত : ৪৫) “তারা ফাসেক” (সূরা মায়িদা, আয়াত : ৪৭)

অতএব, প্রথমত: মুসলিম হিসেবে আমরা বাধ্য যে, আমাদেরকে কোরআন-সুন্নাহর বিধানের কথা বলতেই হবে। দ্বিতীয়ত: প্রচলিত আইন অপরাধ দমনে অকার্যকর হওয়ার বিষয়টি আজ স্পষ্ট ও প্রমাণিত। তাইতো মানুষ কোন কোন অপরাধের বিচারে বিচারবহির্ভূত হত্যা ক্রসফায়ারকেও সমাধান মনে করছে। এমতাবস্থায় ইসলামী আইনের সৌন্দর্য তুলে ধরলে মানুষ সহজেই তা গ্রহণ করবে বলে আশা করা যায়। আল্লাহ তায়ালাই সবকিছু ভাল জানেন। (ফেসবুক স্ট্যাটাস)

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here