নিপীড়নের নতুন হাতিয়ার পোড়া মবিল। এই পোড়া মবিল কালি লেপে দেওয়া হয়েছে গাড়ির চালক, সাধারণ যাত্রী, এমনকি স্কুল-কলেজের মেয়েদের গায়ে-পোশাকেও। অভিনব নিপীড়নের হাতিয়ার হিসেবে পোড়া মবিলের ব্যবহার একেবারেই নতুন। এর আগে হাতুড়ি ও হেলমেটের ব্যবহার নিয়ে আলোচনা ছিল।

সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকে ৪৮ ঘণ্টা ধর্মঘটের প্রথম দিন রবিবারে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে চালক ও যাত্রীদের গায়ে-মুখে পোড়া মবিল লেপে দেওয়ার বেশকিছু ঘটনা ঘটেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ মূলধারার গণমাধ্যমেও পোড়া মবিল লেপে দিয়ে মানুষের চেহারা ও পোশাক ‘কালিময়’ করে দেওয়ার কিছু ছবি প্রকাশ হয়েছে। এ নিয়ে ক্ষোভ ও ধিক্কার জানাচ্ছে নানা শ্রেণির মানুষ।

পোড়া মবিলের কালি

এদিকে শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী বিকেলে গণমাধ্যমের কাছে পোড়া মবিলের কালি লেপনের দায়ভার তারা নেবেন না বলে জানিয়েছেন।

ধর্মঘট আহ্বানকারী এই শ্রমিক ফেডারেশনের নির্বাহী সভাপতি নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান। পরিবহন শ্রমিকদের সব রকম কর্মকাণ্ডের পক্ষে কথা বলে বারবার তিনি আলোচিত হয়েছেন। এবার অবশ্য পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘট নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কোনো কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

গণপরিবহন ছাড়াও রবিবার রাস্তায় নামা কোনো কোনো প্রাইভেটকার, সিএনজি ও মোটর সাইকেল চালাতেও বাধা দিয়েছে এবং ভাংচুর করেছে পরিবহন শ্রমিকরা। সাদা প্রাইভেট গাড়িতেও পোড়া মবিল লেপে দিয়েছে তারা। বাদ যায়নি রোগী পরিবাহী অ্যাম্বুলেন্সও।

নিপীড়নের নতুন হাতিয়ার পোড়া মবিলের কালি দিয়ে মানুষকে পীড়িত ও বিব্রত করার এই কৌশল কবে থামবে-সেটাই এখন দেখার ব্যাপার।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here