ফাইল ফটো

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ভোটকেন্দ্র ও ভোটগ্রহণের পরিবেশ সুষ্ঠু ও সুন্দর রাখতে এবং যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবেলায় আগামীকাল সোমবার থেকে মাঠে নামছে সেনাবাহিনী। ২ জানুয়ারি পর্যন্ত মাঠে থাকবে তারা।

সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রয়োজন অনুযায়ী টহল ও অন্যান্য আভিযানিক কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন। তবে সেনাবাহিনী বিচারিক ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবেন না। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করবেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জারি করা এ সংক্রান্ত একটি পরিপত্রে সশস্ত্র বাহিনীর কর্মপরিধিতে বলা হয়েছে, আইনশৃঙ্খলা বিপন্ন হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিলে নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা সহায়তা চাইলে পুলিশসহ অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে তারা সহায়তা করবেন।

ইতিমধ্যে দেশব্যাপী বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। তারা আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছে। ফলে কিছুটা হলেও জনমনে স্বস্তি ফিরেছে। আশা করা হচ্ছে সেনাবাহিনী নামলে পাল্টে যাবে পরিস্থিতি। সব দলই সমানভাবে নির্বাচনী প্রচারনা চালাতে পারবে।

 

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here