একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে সরিয়ে দিতে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের গাড়িবহরে হামলা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আ স ম রব।

তিনি বলেছেন: আমরা মরবো, কিন্তু সরবো না। আমরা ৩০ তারিখে ব্যালটের লড়াই করতে চাই। এই স্বৈরাচারকে সরিয়ে দিতে চাই।

পুরনো পল্টনে ঐক্যফ্রন্টের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কিছুক্ষণ আগে তিনি এসব কথা বলেন। আজ সকালে ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী প্রচারে হামলার প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

এ রব বলেন, শুক্রবার সকালে তারা আমাদের ওপর বর্বর হামলা করে। ইট পাটকেল, হকিস্টিক দিয়ে হামলা করে৷ এটি পরিকল্পিত হামলা। তারা চায় আমরা যেন নির্বাচন করতে না পারি।

তিনি বলেন: আমরা জনগণকে এখন প্রতিরোধের নির্দেশ দিচ্ছি না। আমরা ৩০ তারিখে ব্যালটের লড়াই করতে চাই। নির্বাচন থাকবো৷ মরবো, সরবো না।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম এই নেতা বলেন: হামলার পর আমি থানায় যেতে চেয়েছিলাম মামলা করতে। কিন্তু আমাকে আমাদের নেতারা বলেছেন, থানার সামনে ওরা পাহারা দিয়ে রেখেছে৷ আপনাকে মেরে ফেলতে পারে। এই যদি হয় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড, তাহলে কিসের নির্বাচন?

এসময় হামলায় ১০০ জনের মতো আহত হয়েছে বলে জানান তিনি৷

এসময় মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন: আমরা ২৯ তারিখ পর্যন্ত মাটি কামড়ে পড়ে আছি। কিন্তু ৩০ তারিখে এই কামড় অন্যদিকে চলে যাবে। আগামীকাল এখান থেকে ময়মনসিংহ পর্যন্ত লংমার্চ করবো। ১৬ তারিখ বিজয় দিবসে আমরা বিজয় র‌্যালী করবো। আমরা বিজয় দিবসে দেখিয়ে দিব।

রেজা কিবরিয়া বলেন: ড. কামাল হোসেনের ওপর হামলা করার মতো কোনো মানুষ এদেশে আছে বলে আমার জানা ছিলো না। কিন্তু ক্ষমতার জন্য আজকে এ ঘটনা ঘটালো তারা৷ আমার কথা হলো, তোমরা এমন কী করেছো যে ক্ষমতা হারানোর ভয় পাচ্ছো?

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here