বিচারকের অপসারন দাবিতে ঢাকার সিএমএম আদালতের সামনে অবস্থান নিয়েছেন আইনজীবীরা। ফলে বন্ধ রয়েছে বিচার কাজ। গতকাল এক আইনজীবীকে আটকে রেখে সনদ বাতিলের হুঁশিয়ারির প্রেক্ষিতে আজ এই কর্মসূচি পালন করছে তারা।

জানা যায়, গতকাল সিএমএম কোর্ট-৩ এর পেশকারের কাছে বিচারকের কোর্টে ওঠার সময় জানতে চান আইনজীবী এড. রুবেল আহমেদ ভূঁইয়া। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই আইনজীবীকে আটকে রেখে তার সনদ বাতিলের হুঁশিয়ারি দেন বিচারক। এ ঘটনার বিচার চেয়ে ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে আবেদন করেন এড. রুবেল আহমেদ।

আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বরাবর লেখা ওই চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘৩ নং কোর্টের জনাব আসাদুজ্জামান নুর-এর আদালতে মামলা করতে গেলে পেশকার সাহেবকে টাইম জিজ্ঞাসা করিলে বলে ১০টা ৩০ মিনিটে কোর্ট উঠবে কিন্তু ১১টা বাজার পরও কোর্ট না উঠলে আমি পেশকারকে বলি নির্দিষ্ট টাইম জানতে চাই। পরে বিজ্ঞ আদালত আমার মামলা ডাকলে আমি সামনে যাইতেই তিনি বললেন, আমি কোর্টে বিশৃংখলা করার চেষ্টা করছি।

আমি বললাম বিশৃংখলার চেষ্টা করি নাই।  তিনি বললেন, আপনার মামলা শুনব না, আপনি পরে আসেন পরে শুনব।’

ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে দেয়া ওই অভিযোগপত্রে তিনি আরও বলেন, ‘আমি পরে গেলে তিনি আদালত চলাকালীন সময়ে আমাকে পুলিশ দ্বারা লক-আপ এ আটকিয়ে রাখে এবং আমার সনদ বাতিল করে দিবে এবং সকল ম্যাজিস্ট্রেটকে বলে দিবে আমার কোন মামলা না শোনার জন্য। আমি বিষয়টিতে চরম অপমানবোধ করছি।’

এদিকে গতকালের ওই ঘটনার জের ধরে আজ সকাল থেকেই আইনজীবীরা ঢাকা সিএমএম আদালতের সামনে অবস্থান নিয়েছেন। তারা ওই বিচারকের অপসারণের দাবি করছেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here