ইজতেমার মাঠে অবস্থিত মাদ্রাসার ছোট বাচ্চাদের উপর নির্যাতনের কাহিনী শুনে এবং মাদ্রাসার ভগ্নস্তূপ দেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একপর্যায়ে অশ্রুসিক্ত হয়ে বলেন, ‘এমন বর্বরতা আমি জীবনেও দেখিনি।’

গত ১ ডিসেম্বর ইজতেমার মাঠে ঘটে যাওয়া নৃশংসতারর পর আজ মাঠ পরিদর্শন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ সময় তার সামনে সেদিনের ঘটনার কিছু চিত্র তুলে ধরা হলে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাবলীগে যারা আসে তারা সবাই আল্লাহওয়ালা, আমরা কোনদিন ভাবতে পারিনি এমন কিছু একটা হবে। আমরা পরিপূর্ণ সজাগ ছিলাম, কিন্তু তাদের আক্রমণ ছিলো আমাদের ধারণারও বাইরে।

তিনি আরো বলেন, পূর্ববর্তী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ইজতেমা পর্যন্ত সারা দেশে ইজতেমা কেন্দ্রিক সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। নির্বাচনের পর মুরুব্বিরা বসে সকলের ঐক্যমতে যে সিদ্ধান্ত হবে সে অনুযায়ী ইজতেমা হবে। এ সময় তিনি ইজতেমা না হওয়ার বিষয়টিকে নাকচ করে দেন!

মাদ্রাসাটির শিক্ষক হাফেজ আব্দুল করীম জানান, সেদিন বাচ্চারা কোরআন তেলাওয়াত করছিলো। হামলাকারীরা দরজা ভেঙে তাদেরকে কোরআন পাঠরত অবস্থায় বেধড়ক মারপিট শুরু করে, বাচ্চারা এসময় তাদের পায়ে পড়লেও রেহাই মেলেনি কারো।

পরিদর্শন কালে আরো উপস্থিত ছিলেন, তাবলিগের আলেম উপদেষ্টা মজলিসে দাওয়াতুল হকের আমির আল্লামা মাহমূদুল হাসান, জামিয়া রাহমানিয়ার প্রিন্সপাল মাওলানা মাহফুজুল হক, তাবলীগের শুরা প্রধান মাওলানা জোবায়ের আহমদ ও আম্বরশাহ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here