যমযম ডেস্ক :

শান্তির বার্তা নিয়ে জগত জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে দাওয়াত ও তাবলীগের কাজ। সেই তাবলীগে কেন অশান্তির বার্তা, বিশৃঙ্খলা ও গোলযোগ?

আজ টঙ্গীর ইজতেমা ময়দান রক্তাক্ত হওয়ার পরে এ প্রশ্নের উত্তর পেতে খুব বেশি বেগ পেতে হবে না। এতে যে চরমপন্থী ও উগ্রপন্থী কিছু লোকজন অনুপ্রবেশ করেছে তা সা’দ পন্থীদের আজকের কার্যকলাপে সহজেই বুঝা যাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে এই উগ্রবাদীদের বেশ কটি ভিডিও ক্লিপ। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওগুলো দেখে সহজেই তাদের মনোভাব ও লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বুঝে আসছে।

এক ভিডিও বার্তায় মাঠে অবস্থানরত আলেম-ওলামাদের কে নানাভাবে গালাগাল করতে দেখা গেছে এবং আরেকটি লাইভ ভিডিও তে এসে তাদেরকে হুংকার ছাড়তে দেখা গেছে যে, আমিরের নির্দেশ পেলেই তারা ময়দানে অবস্থানরত আলেম-ওলামা ও মাদ্রাসা ছাত্রদেরকে পিষে মারবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন উঠেছে, কে তাদের আমির? কতটা শক্তিধর তাদের আমির? যে আমির নির্দেশ করলেই আলেম-ওলামাদের কে পিষে মারবে। তারা আসলে ইসলামের অনুসরণ করছে না তাদের আমিরের অনুসরণ করছে? তাবলীগে তারা যাদেরকে আমির মনে করছে সেই আমীরের নির্দেশ পালন করা কি এতটাই জরুরি যে, মানুষ হত্যা করতে হবে।

সর্বশেষ হতাহতের খবর পেয়ে বুঝতে বাকী রইল না যে, সত্যিই তারা আমিরের নির্দেশ পালন করতে গিয়ে নিরীহ সাথী ও আলেম-উলামাদের উপর আক্রমণ করে তাদেরকে হতাহত করেছে।

এই চরমপন্থী উগ্রপন্থীদের ব্যাপারে এখনই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবস্থা নিতে হবে। আর না হয় দেশে আবারও চরমপন্থীরা বড় ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটিয়ে বসবে।

 

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here