তিন বয়স্ক ব্যক্তিকে কান ধরে উঠবস এবং নিজেই সে ঘটনার ছবি তুলেছিলেন যশোরের এসিল্যান্ড সাইয়েমা হাসান। এ ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে। এ অবস্থায় নাগরিকদের সঙ্গে সম্মানজনক আচরণ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে মাঠ প্রশাসনকে ।

আজ শনিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) কাছে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

জনপ্রশাসন সচিব শেখ ইউসুফ হারুন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সব জেলা প্রশাসককে বলা হয়েছে, এ রকম ঘটনা (যশোরের মতো) আর যেন না ঘটে। সিনিয়র সিটিজেন তো বটেই, দেশের যেকোনো নাগরিকের সঙ্গে যাতে সম্মানজনক আচরণ করা হয়- সে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসকদের প্রতি দেয়া নির্দেশনাটি বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যসোসিয়েশনের ফেসবুক পেজেও আপলোড করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

করোনা ভাইরাস রোধে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ ছাড়া সকল ধর্মীয়, সামাজিক ও অন্যান্য অনুষ্ঠান এবং গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গত শুক্রবার যশোরের মণিরামপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসানের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। এ সময় মাস্ক না পরায় এক সাইকেল চালক, তরকারি বিক্রেতা ও এক ভ্যানচালককে কান ধরে উঠবস করান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সেইসঙ্গে নিজেই মোবাইলে সেই ঘটনার ছবি তোলেন। যা দেশব্যাপী ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয়।

এ অবস্থায় মাঠ প্রশাসনকে ওই নির্দেশনা দিলো সরকার। এ ছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইয়েমাকে প্রত্যাহার করে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ন্যস্ত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হবে বলেও জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here