করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব কওমি মাদ্রাসায় ক্লাস বন্ধ রাখা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে হাফেজি মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রম। তবে মাদ্রাসার যেসব আবাসিক শিক্ষার্থী ছাত্রবাসে অবস্থান করছে, তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ছাত্রাবাস থেকে বের হতে পারবে না। ছাত্রাবাসে বহিরাগত কেউ প্রবেশ করতে পারবে না।

দেশের অধিকাংশ কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বেফাকুল মাদ্রাসিল আরাবিয়ার (বেফাক) যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার দেশের সকল মাদ্রাসার সম্মিলিত বোর্ড আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়ার বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তবে আগামী মাসে দাওরায়ে হাদিসসহ অন্যান্য পরীক্ষা যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষার্থীদের ছাত্রবাসে কোয়ারেন্টাইনে থেকে পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে হাফেজি মাদ্রাসাগুলোর নিয়ন্ত্রক সংস্থা হুফফাজুল কুরআন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ হিফজ শিক্ষাবোর্ডও ক্লাস স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার সংস্থা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে সংস্থার সাধারণ হাফেজ মোহামম্মদ নাসির উদ্দিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০২০ সালের ১০ম বার্ষিক পরিক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব মাদরাসা বন্ধ থাকবে। পরীক্ষার পরবর্তী তারিখ পরে জানানো হবে।

সরকারি সিদ্ধান্তে স্কুল কলেজের মতো আলিয়া মাদ্রাসাগুলো বন্ধ রয়েছে গত মঙ্গলবার থেকে। মাওলানা মাহফুজুল হক জানিয়েছেন, মাদ্রাসা বন্ধ থাকলেও শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষতি এড়াতে ছাত্রাবাস খোলা রাখা হয়েছে। কিন্তু সেখান থেকে কাউকে বাইরে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। বহিরাগত কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। সৌজন্যে : সমকাল

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here