মুহাম্মদ আতাউর রহমান : আমাদের কওমীয়ানদের মাঝে একটা বিষয়ের খুব আগ্রহ। সব কিছুতেই তারা ইহুদি খৃষ্টানদের ষড়যন্ত্র আর
সরকার বিরোধী শ্লোগান দিতে পছন্দ করে।

সতর্কতামূলক মাদরাসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েও
তাই দেখা যাচ্ছে। কিন্তু সামান্যতম সচেতনতা থাকলে
এই বিষয়টা বুঝতে পারা যায় যে, এটা একটা বৈশ্বিক
মহামারি! স্বয়ং বিধর্মী রাস্ট্রগুলোর অবস্থা অত্যন্ত করুণ। সরকার শুধু মাদরাসা নয়; সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং কোচিং সেন্টারগুলোও বন্ধ করেছে। সামনে শুধু আমাদের মাদরাসা’র বোর্ড পরীক্ষা নয়; এপ্রিলের
১ তারিখ থেকে সারা দেশে লক্ষ লক্ষ শিক্ষার্থী এইচ এস সি পরীক্ষা দেবে। এ ক্ষেত্রে তো বরং সরকারের সমস্যা এবং লোকসানের সম্ভবনা বেশি! কিন্তু দেখবেন একদল গলাবাজ বক্তা আর জোকার ফেসবুকাররা চিল্লাচিল্লি শুরু করবে। ‘নাস্তিকদের দালালেরা-হুশিয়ার সাবধানে’ শ্লোগান ধরবে।

এই মুহূর্তে সরকারের যেটা মাকসাদ সেটা হলো, গণজমায়েত এড়ানো। আজকে নতুনকরে আরও ৪ জন আক্রান্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন ১০ বছরের কম বয়সী শিশু। এই নিয়ে ১৪ জন। আক্রান্তের সংখ্যা দিনেদিনে বেড়েই চলেছে। আল্লাহ না করুন, যদি পশ্চিমা দেশগুলোর মতো অবস্থা হয়ে যায়? তখন কি করবেন?

আমাদের মাদরাসাগুলোর আবাসিক রুমের অবস্থা কেমন একবার ভাবেন তো! ঢাবির গণরুম থেকে কম কি সে? একবার আক্রান্ত শুরু হলে কি হবে তখন? সে ক্ষেত্রে সতর্কতার মাইর নাই। রাজধানী ঢাকাটা কতটা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থানে আছে ভেবেছেন কখনো? পার্শ্ববর্তী কলকাতা এবং পাকিস্তানের মাদরাসা বন্ধ হয়েছে দু’দিন পূর্বেই। কারণ এটা সতর্কতার বিষয়। সামনে আমাদের মাদরাসা সমূহের গায়রে বেফাক,বেফাক এবং হাইয়াতুল উলয়ার পরীক্ষা। সবাই প্রস্তুতি নিচ্ছে। এই মুহূর্তে এমন সিদ্ধান্ত নিলে এটা কষ্টের হবে। যা অনস্বীকার্য। কিন্তু জীবনের চে’ তো বেশি মূল্য নয় এর!

তাই উচিত হবে সরকারের সিদ্ধান্তকে মেনে নিয়ে সাময়িক ভাবে মাদরাসা ছুটি দেয়া। অন্তত ঢাকার মাদরাসাগুলো। পরীক্ষা কিছু পিছিয়ে দিলে সবাই বাড়ীতে থেকে প্রস্তুতি নিতে থাকলো। আর বেশি বেশি দোয়া করতে থাকলো! আল্লাহর অনুগ্রহে অবস্থার উন্নতি হলে তখন মুরুব্বীদের ফায়সালা অনুযায়ী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো। সবকিছু এখন মালিকের হাতে। পরিস্থিতি’র উন্নতি না হলে আমাদের জন্য সামনে ভয়াল দিন অপেক্ষা করছে। তাই পরিবারের সবাইকে নিয়ে বেশি বেশি দোয়ার এহতেমাম করা। রোনাজারি করা। আল্লাহ্ তুমি রক্ষা করো আমাদের। এমন বিপদ আমাদের উপর চাপিয়োনা । চাপিয়োনা।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here