ভারতীয় জাহাজের ধাক্কায় হুগলি নদীতে পণ্যবাহী বাংলাদেশি বার্জ ডুবির ঘটনা ঘটেছে। তবে বার্জে থাকা ১৩ জন ক্রুকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

ভারতীয় গণামাধ্যম এনডিটিভি জানায়, ‘এমভি মমতাময়ী মা’ নামে ওই বার্জের সঙ্গে বৃহস্পতিবার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় কলকাতা বন্দরের একটি জাহাজের। এতে মাঝগঙ্গায় ডুবে যায় বাংলাদেশি পণ্যবাহী ওই বার্জটি।প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, বার্জ পুরোপুরি ডুবে যাওয়ার আগে আগুন যায়। তবে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়ে মমতাময়ীর ১৩ জন ক্রুকে। বজবজের একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ফ্লাইঅ্যাশ ভরে বাংলাদেশে ফেরত যাওয়ার পথেই এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এই দুর্ঘটনার বিষয়ে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের মুখপাত্র সঞ্জয় মুখোপাধ্যায় বলেছেন, কলকাতা ডিভি রবীন্দ্র নামে জাহাজটি মেরামতের সামগ্রী নিয়ে আসছিল। সেই সময় বাংলাদেশি বার্জের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতেই এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে ওই বার্জের ১৩ জন ক্রু নিরাপদে রয়েছেন। এদিকে পোর্ট ট্রাস্টের চেয়ারম্যান বিনিত কুমার এই দুর্ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

পোর্ট ট্রাস্ট দাবি করছে, ঢাকার এই বার্জ ভুল দিকে এসে বন্দরের জাহাজকে ধাক্কা মারে। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় কলকাতার জাহাজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সংঘর্ষের পর বন্দরের জাহাজের ক্রুরা বাংলাদেশি বার্জকে গতি কমিয়ে পেছনে সরে যেতে অনুরোধ করেছিল। কিন্তু সেই নির্দেশ মানতে না পেরে ডুবে যায় সেই বাংলাদেশি বার্জ।

কলকাতার মমতাময়ীর এজেন্ট হিসেবে কাজ করা অভিপ্রিয়া ভেঞ্চার্স বলেছে, ৯০০ টন ছাই নিয়ে বাংলাদেশ যাচ্ছিল বার্জটি। দুর্ঘটনায় পড়লে আমাদের একটি জাহাজ এমভি সানি ক্রুদের উদ্ধার করে। উদ্ধারকারী জাহাজ এসে পৌঁছানো পর্যন্ত ১৩ জন ক্রুদের এই শহরেই থাকতে হবে বলে জানান নিত্য সাহা।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here