পাকিস্তানের পেশোয়ারের দের কলোনিতে অবস্থিত একটি মাদরাসার ভেতর এমন সময় বোমা বিস্ফোরণ হয়েছে, যখন বহু সংখ্যক ছাত্র দ্বীনী শিক্ষা অর্জন করছিলেন। বিস্ফোরণটি এতই ভয়াবহ ছিল যে, দূর-দূরান্ত পর্যন্ত এর বিকট শব্দ শোনা গেছে।

এ ঘটনায় কমপক্ষে সাতজন শাহাদাত বরণ করেছেন। আহত হয়েছে আরও ৭০ জনের বেশি মানুষ। এর মধ্যে অধিকাংশই ওই মাদরাসার শিক্ষার্থী। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকালে ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। খবর ডন, আল জাজিরা।

এক পুলিশ কর্মকর্তা আল জাজিরাকে জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালে স্পিন জামাত মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ওই মসজিদটিতে স্থানীয় শিশুদের ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়া হতো।

মানসুর আমান নামে পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ওই বিস্ফোরণের খবর নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে একটি বিস্ফোরক ডিভাইস দিয়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। এতে পাঁচ কেজি বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

ওই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পুরো এলাকা ঘিরে রেখেছে নিরাপত্তা বাহিনী। ঘটনাস্থল থেকে প্রমাণ সংগ্রহ করছে পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিস্ফোরণে দুই শিক্ষক আহত হয়েছেন। লেডি রিডিং হাসপাতালের মুখপাত্র মোহাম্মদ আসিম জানিয়েছেন, ওই হাসপাতালে সাতটি মরদেহ এবং আহত ৭০ জনকে আনা হয়েছে।

বিস্ফোরণের স্থান পরিদর্শন করেছেন খাইবার পাখতুনখোয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী তৈমুর সেলিম ঝাগরা। তিনি জানিয়েছেন, আহতদের সর্বোত্তম চিকিৎসাসেবা দেওয়ার বিষয়টিকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here