গত শুক্রবার ইরাকের রাজধানী বাগদাদের বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাশেম সোলায়মানিসহ ৫ জনকে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী। যার কারণে চলমান ইরান-আমেরিকার মধ্যেকার উত্তেজনা কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এ হামলার প্রতিক্রিয়া হিসেবে বিভিন্ন দেশের নেতারা তাদের মতামত তুলে করেছেন। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানও তাদের একজন।

সিএনএন টার্কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এরদোগান সোলায়মানি হত্যাকাণ্ডে নিজের মতামত তুলে ধরে বলেন, জেনারেল কাশেম সোলায়মানি মধ্যপ্রাচ্যের ক্ষমতাশালী ব্যক্তি ছিলেন। কোনো দেশের উচ্চ পর্যায়ের একজন ব্যাক্তিকে এভাবে মেরে ফেললে তার জবাবদিহিতা করতে হবে। তাই যুক্তরাষ্ট্রকে বিনা জবাবে ছেড়ে দেওয়া যাবে না।

এরদোগান আরও বলেন, সোলায়মানের হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি তুরস্ক বেশ উদ্বেগের সঙ্গে পর্যালোচনা করছে। আমার মতে এটি একটি পূর্ব পরিকল্পিত হামলা। তবে সোলায়মানি এভাবে চলে যাবেন তা কখনো ভাবিনি। শুনে আমি হতবাক হয়ে গেছি। আমি তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

শুক্রবার সোলায়মানি হত্যাকাণ্ডের পর ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সাথে ফোনালাপ করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। ফোনালাপে এরদোয়ান সোলায়মানি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেন। এ সময় এরদোয়ান সোলায়মানিকে শহীদ হিসেবে সম্বোধন করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here