ইরানের বিপ্লবী গার্ডের কুদস ব্রিগ্রেডের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে রকেট হামলা চালিয়ে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরাসরি নির্দেশনায় এই হামলা চালায় মার্কিন বাহিনী।

জানা গেছে, মধ‌্যপ্রাচ‌্যে যুক্তরাষ্ট্রের অন‌্যতম মিত্র দেশ কাতারের একটি ঘাঁটি থেকে ড্রোন উড়িয়ে এনে হ‌ত‌্যা করা হয় ইরানের জেনারেল সোলাইমানিকে। খবর ডেইলি মেইল, আরব নিউজ, দ‌্য অ‌্যারাবিয়া ও গাল্ফ নিউজের।

ইরাকের বাগদাদে সোলাইমানির ওপর হামলার গ্রাফিক্স ব‌্যবহার করে ডেইলি  মেইল জানায়, কাতারে অবস্থিত আল উদেইদ সেনা ঘাঁটি থেকে পাঠানো এমকিউ-৯ রিপার ড্রোন পাঠানো হয়। সেই ড্রোন থেকে হেলফায়ার আর৯এক্স ক্ষেপনাস্ত্র ফেলা হয় সোলাইমানির গাড়িবহরে। আর ড্রোনকে নিয়ন্ত্রণ করা হয় যুক্তরাষ্ট্রের নেভেডা বিমানঘাঁটি থেকে। দুটি গাড়িতে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে। যার একটিতে কাসেম সোলাইমানি ও মেহেদি মুহান্দিস ছিলেন।

সংবাদমাধ‌্যমগুলো জানায়, রিপার ড্রোন ১৮৫০ কিলোমিটার দূরে এবং ১৫ কিলোমিটার উচ্চতায় প্রায় শব্দহীনভাবে যেতে পারে।

এদিকে, আরব নিউজ জানিয়েছে, এই হত‌্যাকাণ্ডে কাতারের জড়িত থাকার কথা বের হয়ে পড়েছে। সেজন‌্য কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মুহাম্মদ বিন আব্দুল রহমান ছুটে গেছেন তেহরানে। ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রোহানির এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফের সঙ্গে দেখা করে কথা বলেছেন তিনি।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here