পাঞ্জাবের জন্য পাকিস্তান সরকারের ১০০ দিনের কর্মসূচি নিয়ে শনিবার লাহোরের আইয়ান-ই-ইকবালে বক্তব্য রাখছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: ডন।

সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠির অধিকার নিশ্চিত না করলে যে অসন্তোষ দানা বাঁধতে পারে, তা বোঝাতে গিয়ে পূর্ব পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্মের উদাহরণ টেনেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এর মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ সৃষ্টির পেছনে বঞ্চনাই প্রধান কারণ ছিলো বলে স্বীকার করে নিলেন পাকিস্তানের এই প্রধানমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, এ ঘটনা থেকে ভারতকে শিক্ষা নেয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। খবর বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের।

শনিবার পাঞ্জাব সরকারের ১০০ দিন পূর্তি উপলক্ষে লাহোরে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ইমরান খান। তিনি বলেন, পাকিস্তানের ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা যেন তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয় তার জন্য তার সরকার সচেষ্ট৷

‘যখন দুর্বলদেরকে প্রাপ্য ন্যায়বিচার হতে বঞ্চিত করা হয়, তখনই অস্থিরতা আর আন্দোলন দেখা দেয়। পূর্ব পাকিস্তানের মানুষকে তাদের প্রাপ্য অধিকার দেয়া হয়নি এবং বাংলাদেশ সৃষ্টির পেছনে এটিই প্রধান কারণ।’ বলেন ইমরান খান।

ভারতকে ধর্মীয় সহিষ্ণুতার শিক্ষা দিতে চান বলেও মন্তব্য করেন পাক প্রধানমন্ত্রী। বর্ষীয়ান ভারতীয় অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহকে সমর্থন জানিয়ে এসব বলেন তিনি। সম্প্রতি ‘একজন পুলিশের মৃত্যুর চেয়ে একটি গরুর মৃত্যু ভারতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে’ এমন মন্তব্যের জেরে চরম অপমানিত হতে হয়েছে নাসিরুদ্দিন শাহকে।

ইমরান বলেন, ভারত সংখ্যালঘুদের জন্য আর নিরাপদ নয়। দেশটিতে এখন আর সংখ্যালঘুদের সমান চোখে দেখা হয় না।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here