অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপানোর জন্য ইরাকের রাজধানী বাগদাদের মার্কিন দূতাবাসে আমেরিকাই রকেট হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছে ইরাকের সন্ত্রাসবিরোধী আধাসামরিক বাহিনী কাতায়িব হিজবুল্লাহ।

তিনি বলেন, বাগদাদের গ্রিন জোনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে হামলা হলে তার একমাত্র লাভবান পক্ষ হবে আমেরিকা। এ কারণে ইরাকের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর ওপর চাপ সৃষ্টি ও দায় চাপাতে আমেরিকা নিজেই ওই হামলা চালিয়েছে।

গত ২০ ডিসেম্বর বাগদাদের মার্কিন দূতাবাস ভবনের কাছে বেশ কয়েকটি কাতিউশা রকেট আঘাত হানে। এতে কেউ হতাহত না হলেও দূতাবাস ভবনের সামান্য ক্ষতি হয়।

মুহাম্মদ মোহি বলেন, ইরাকি জনগণ যাতে মার্কিন হামলায় নিহত ইরানি কমান্ডার কাসেম সোলায়মানি ও ইরাকি কমান্ডার মাহদি আল-মুহান্দিসের শাহাদাতবার্ষিকী ঠিকমতো পালন করতে না পারে, সে লক্ষ্যে এই নাটক মঞ্চস্থ করেছে মার্কিন দূতাবাস। ইরাকি জনগণ মনে করছে, বাগদাদের অন্যান্য দূতাবাসের মতো মার্কিন দূতাবাস স্বাভাবিক কূটনৈতিক তৎপরতা চালাচ্ছে না; বরং ওই দূতাবাসে আমেরিকা ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা ও সেনা মোতায়েন করে রেখেছে।

মার্কিন দূতাবাসকে একটি সামরিকঘাঁটিতে রূপান্তর করা হয়েছে, যা ইরাকি নাগরিকদের জীবন ও সম্পদকে হুমকিগ্রস্ত করে তুলেছে।

ইরাকি জনগণ তাদের দেশ থেকে সন্ত্রাসী মার্কিন সেনাদের বহিষ্কার দাবি করছে। দেশটির পার্লামেন্টও মার্কিন সেনাদের বহিষ্কারের আহ্বান জানিয়ে আইন পাস করেছে।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here