নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও স্বদেশের জায়গা জমি ফেরত পাওয়াসহ মৌলিক ৩ টি দাবি পূরণ না হলে মায়ানমারে ফিরবে না রোহিঙ্গারা। আজ (১৫ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উনচিপ্রাং ক্যাম্পের ভেতরে বিক্ষোভকালে এ কথা বলেন তারা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিক্ষোভ চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নির্ধারিত সময় অনুযায়ী প্রত্যাবাসনের জন্য উনচিপ্রাং রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে রোহিঙ্গাদের নিয়ে আসার জন্য শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) কয়েকটি বাস পৌঁছালে বিক্ষোভ শুরু করেন রোহিঙ্গারা। সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে নানা দাবি তুলে স্লোগান দিচ্ছেন তারা। বাসগুলো ঘিরে রাখা হয়েছে।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া রোহিঙ্গারা- ‘এখন আমরা ফিরবো না’, ‘ গণহত্যার বিচার চাই’, ‘নিরাপত্তার নিশ্চয়তা চাই’, ‘স্বদেশের জায়গা জমি ফেরত চাই’ ইত্যাদি দাবিতে শ্লোগান দিচ্ছেন।

কয়েকজন রোহিঙ্গার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত তারা মিয়ানমারে ফেরত যেতে চান না। রোহিঙ্গারা বলছে, মায়ানমারে এখনো রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চলছে। তাই নিরাপত্তা নিশ্চিত না হলে আমরা কিছুতেই সেখানে যেতে পারি না।

বাংলাদেশ-মিয়ানমারের গঠিত যৌথ ওয়ার্কিং কমিটির তথ্য অনুযায়ী আজ (বৃহস্পতিবার) রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সে অনুযায়ী প্রস্তুতও রয়েছে দুদেশ। প্রথম দফায় যেসব রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন করা হচ্ছে, তারা টেকনাফের উনচিপ্রাং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। উখিয়ার বালুখালী সংলগ্ন নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম সীমান্তের ট্রানজিট পয়েন্ট দিয়ে তাদের পাঠানোর কথা রয়েছে।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here