নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) সমর্থক-বিরোধীদের মধ্যে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিদিনই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এ ঘটনায় অন্তত ৪৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত ১৪৮টি অভিযোগ করা হয়েছে পুলিশের কাছে এবং আটক হয়েছে ৬৩০ জন।

এদিকে, দিল্লির অশান্তির মধ্যেই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে এবার উত্তপ্ত হয়ে উঠল মেঘালয়। সিএএ ও ইনার লাইন পারমিট (আএলপি)-কে কেন্দ্র করে খাসি ছাত্র সংগঠন ও অ-জনজাতি সম্প্রদায়ের সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন একজন। ক্ষতি হয়েছে বহু দোকান-বাড়ির। উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারফিউ জারি হয়েছে শিলংয়ে। ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে রাজ্যের আরও ৬ জেলায়।

টুইটে মেঘালয় পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে খাসি ছাত্র সংগঠন, (কেএসইউ)র বৈঠকের পরই সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। কেএসইউ সদস্যদের সঙ্গে অ-জনজাতি সম্প্রদায়ের সংঘর্ষে ভাঙচুর চালানো হয় বেশ কিছু গাড়িতে। একটি খড়ের গাদায় আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। সংঘর্ষেই নিহত হন এক কেএসইউ সদস্য।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আহত হয়েছেন এক পুলিশকর্মীও। ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কনরাড শর্মা। শান্তি বজায় রাখতে আবেদন করে টুইট করেছেন রাজ্যপাল তথাগত রায়।

সূত্র: এই সময়

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here