আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের বনশ্রী শাখার ইংরেজি শিক্ষিকা রুবিনা সুলতানার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছে বাংলাদেশ মুসলিম সমাজ।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংগঠনটির উদ্যোগে ছাত্রীদের ওড়না খুলে ক্লাশে ঢুকানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে এই দাবি জানানো হয়। বাংলাদেশ মুসলিম সমাজের মহাসচিব মাসুম হোসাইনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যের সাবেক ধর্ম ও পানি সম্পদ মন্ত্রী বিএলডিপির চেয়ারম্যান এম নাজিম উদ্দিন আল আজাদ বলেন, যে দেশে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম এখনো বহাল সেই দেশে কিভাবে বোরকা, ওড়না, হিজাব ও টুপি স্কুল-কলেজে নিষিদ্ধের কথা বলেন। কাদের আষ্করায় তারা এই ধৃষ্টতা দেখানোর সাহস পায়। তিনি অনতিবলম্বে এদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। অন্যথায় গণআন্দোলনের মাধ্যমে জনগণ এদের শাস্তি দিবে। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এদেশের মুসলমান কখনো মেনে নিবে না।

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান ডাঃ মুহাম্মদ মাসুদ হোসেন বলেন, ভারতীয় সংস্কৃতি এদেশের কমলমতি ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্যে ঢুকিয়ে দিয়ে এদেশের মুসলিম সংস্কৃতিকে বিলুপ্ত করার সুপরিকল্পিত চক্রান্ত চলছে। আর এই পরিকল্পনার বাস্তবায়ন করার অংশ হিসেবে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বোরকা, ওড়না, হিজাব ও টুপি নিষিদ্ধ করা, এমনকি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদরাসাগুলোতে জাতীয় সংগীত ও পিটির নামে বিজাতীয় সাংস্কৃতি এদেশের মুসলিম সন্তানদের মাঝে ঢুকিয়ে মুসলমানদের ঈমান-আকিদা ধ্বংস করার চক্রান্ত করছে।

তিনি বলেন, ভারতীয় টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে বিভিন্ন সিরিয়াল দেখিয়ে মানুষের মনে হিংসা-বিদ্বেষ সৃষ্টি করছে। একটি দেশকে ধ্বংস করতে হলে সেই জাতির সংস্কৃতিকে ধ্বংস করলেই জাতি ধ্বংস হয়ে যায়। ভারত সেই সুদূর পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তাদের গোয়েন্দা সংস্থা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। ভারত সীমান্তে পাখির মতো গুলি করে আমাদের ভাই বোনদের হত্যা করছে। দেশের হাজার বছরের সাংস্কৃতি, হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ বিভিন্ন জাতির মাঝে সৌহাদ্যপূর্ণ পরিবেশ সম্পর্ক বজায় আছে। তার মধ্যে ভাঙন সৃষ্টি করে এই দেশকে অস্থিতিশীল করে এদেশকে সিকিমের পরিনতি বরণ করার চেষ্টা করছে। মাসুদ হোসেন জনগণের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা সকলেই ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভারতের এই গভীর ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে এই দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষা করি।

মানববন্ধনের আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা মাওঃ শওকত আমীন, বাংলাদেশ রিপাবলিকান পার্টির চেয়ারম্যান প্রফেসর বাজলুর রহমান আমিনী, ন্যাশনাল লেবার পার্টির চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ জিয়া, স্বাধীনতা পার্টির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু প্রমূখ। বক্তাগণ আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ বনশ্রী শাখা ইংরেজি বিভাগের শিক্ষিকা রুবিনা সুলতানার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here