চীনের করোনা ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্বের প্রথম সারির চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের মন্তব্য এখানে তুলে ধরা হলো।

‘আমার মনে হয়, শুধু চলতি মরশুম বা এই বছর থেকে নয়, এই ভাইরাস আমাদের সঙ্গে আরও আগে থেকে রয়েছে। এও মনে হয়, খুব শিগগিরই এই ভাইরাস মরশুমি ফ্লু-তে পরিণত হবে। পার্থক্য শুধু এটাই হবে যে, আমরা এই ভাইরাসকে বুঝতে পারব না।’
ডা. রবার্ট রেডফিল্ড, ডিরেক্টর, সিডিডি
ইউএস সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন

‘এই ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ করতে সার্স-এর থেকে বেশি বেগ পেতে হচ্ছে। কারণ, হয়তো আপনাকে অসুস্থ করার আগেই এই ভাইরাস অন্য শরীরে ঢুকে পড়ার ক্ষমতা রাখে। আমার মনে হয়, একটা অত্যন্ত খারাপ ফ্লু-এর মরশুমের জন্য আমাদের তৈরি হতে হবে। বা বলা ভালো, আধুনিক দুনিয়ায় এটাই হবে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ফ্লু-এর মরশুম।’
মার্ক লিপসিচ
মহামারী বিজ্ঞানের অধ্যাপক, হার্ভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেল্থ

‘এপ্রিলের মধ্যেই এই সংক্রমণ শেষ হয়ে যাবে বলেই আমার অনুমান।’
নানশান ঝোং
মহামারী বিজ্ঞানী, সার্স এবং করোনা ভাইরাসের প্রথম বিশ্লেষক

‘এখনই পদক্ষেপ না নিলে অচিরেই বিশ্বের ৬০ শতাংশ মানুষকে সংক্রামিত করে ফেলবে এই ভাইরাস।’
গ্যাব্রিয়েল লিউং
চেয়ার অব পাবলিক হেল্থ ঩মেডিসিন, হংকং বিশ্ববিদ্যালয়

‘এটা একটা নতুন ভাইরাস। আমরা এর সম্পর্কে বেশি কিছু জানি না। তাই একটাই চিন্তা, এই জীবাণু যাতে আরো ভয়ঙ্কর কিছুতে পরিণত না হয়ে যায়।’
ডব্লিউ. ইয়ান লিপকিন
মহামারী বিজ্ঞান বিভাগের ডিরেক্টর, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়

‘সার্সের তুলনায় আমার মতে এই ভাইরাসের সঙ্গে এইচ১এন১ ভাইরাসের সাদৃশ্য আছে। আমি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন।’
পিটান পিয়ট
ডিরেক্টর, দ্য লন্ডন স্কুল অব হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিকাল মেডিসিন

‘দেখে-শুনে মনে হচ্ছে এই ভাইরাস মারাত্মক ছোঁয়াচে। হয়তো এখনও নিজের সমস্ত শক্তিগুলিকে বুঝে উঠতে পারেনি ভাইরাসটি। আমরাও এখনও এর পূর্ণ ক্ষমতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল নই।’
রবার্ট ওয়েবস্টার
ফ্লু বিশেষজ্ঞ, সেন্ট জুড চিলড্রেন্স রিসার্চ হাসপাতাল

‘যে হারে বাড়ছে, তাতে এই ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ করা এখন অসম্ভব ঠেকছে।’
ডা. রবার্ট আর. ফ্রেইডেন
প্রাক্তন ডিরেক্টর, সিডিসি

খুব শীঘ্রই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়বে এই ভাইরাস। তবে, সেটা কতটা সর্বনাশা হবে তা বলতে পারব না।
ডা. অ্যান্থনি এস. ফাউসি
ডিরেক্টর, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজ

‘যতক্ষণ না আমরা একে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি, চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।’
ডা. মাইক রায়ান
হু-এর ইমার্জেন্সি প্রোগ্রামের প্রধান

‘আমরা যত এই ভাইরাস সম্পর্কে জানছি, ততই বুঝতে পারছি বর্তমান জনস্বাস্থ্য পরিকাঠামো দিয়ে একে রোখা অসম্ভব।’
ডা. অ্যালিসন ম্যাকগিয়ার
ডিরেক্টর, মাউন্ট সিনাই হাসপাতাল
সূত্র : বর্তমান

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here