সাইমুম সাদী


আল্লামা শফী প্রধানমন্ত্রীর সাথে হ্যান্ডশেক করেছেন এজন্য উনি ফাসেক হয়ে গেছেন এই সমীকরণ যদি আপনি করেন তাহলে আপনি কর‍তে থাকেন, আপনার সাথে কথা বলে লাভ নাই, আপনার উদ্দেশ্য অন্যকিছু। পুরো ভিডিও চিত্র দেখলে ক্লিয়ার হয়ে যাবেন তিনি ইচ্ছে করে করেছেন নাকি প্রধানমন্ত্রী একজন বয়োবৃদ্ধ আলেমকে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে হাত ধরেছেন।

এই প্রোগ্রামের সমালোচনা করার মত বিষয় অন্য অনেক কিছুই আছে। আপনি তা না করে হ্যান্ডশেক করাকেই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসছেন কারণ আপনার উদ্দেশ্য আল্লামা শফীকে বিতর্কিত করা, ভ্যালু নষ্ট করা, কারণ আল্লামা শফী আপনার স্বার্থে ইউজ হননি এজন্য আপনি ক্ষুব্ধ, বাতেনি কথা এইটাই তো?

আপনি আপনার এইটা নিয়া বইসা থাকেন আমরা অন্যকিছু নিয়া কথা কই।

এই প্রোগ্রামের সমালোচনা করার মত অনেক কিছুই আছে। শাপলায় হতাহত হয় নাই বলে যে বক্তব্য এসেছে তা সঠিক নয় এটা বিভিন্নভাবেই বলার সুযোগ ছিল কেউ বলেননি। সবচেয়ে খারাপ দিক ছিল এই ব্যাপারটা। একজনও কি বলার মত কেউ ছিলেন না?

কিছু আলেম নামধারী লোকজন তেল শুধু মর্দনই করেননি তেলের ড্রাম যেভাবে উপুড় করে ঢালছিলেন স্বয়ং শয়তানও লজ্জা পাওয়ার কথা। একদিক দিয়ে ভালই হল, একটা আলাদা পরিচিতি হয়ে গেল এই লোকগুলোর।

শেখ হাসিনার বক্তৃতা ছিল বিজ্ঞোচিত এবং দূরদর্শী। পুরো প্ল্যান, এই স্বিকৃতী এবং শোকরানা মাহফিল সবই ছিল সময়োচিত। আলেমদের বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের কথা বলতেও তিনি ভুলেননি। শুধু আমরাই ভুলে গেলাম মাত্র কয়েক বছর আগের শাপলা ম্যাসাকার! বলতে পারেন এ হেকমত ছিল, কিন্তু এই শাপলার দগদগে ঘা যে এখনও শুকায়নি হজরত। যার বাবা, ভাই, সন্তান মারা গেছে সে বুঝে এই কষ্টটা।

আজ সবচেয়ে বেশী কষ্ট পেয়েছে বাম ঘরানার লোকজন। বাম পাড়ার ঘরে ঘরে আজ মাতম। তেতুল এখন মিষ্টি হয়ে গেল, আমরা কই রইলাম রে। প্রথম আলো যে কওমিকে জংগিবাদের প্রজনন প্রমাণ করতে মরিয়া ছিল কাল তারাই এই প্রোগ্রামের ছবি সহ নিউজ ছাপাবে তারচেয়ে আনন্দদায়ক কি হতে পারে।

মাত্র কয়েক বছর আগে যাদেরকে এই নষ্ট শহর থেকে মেরে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল আজ রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে, তাদেরকে বাধ্য হয়ে সম্মান জানাতে হচ্ছে এই দৃশ্যের চাইতে ভাল কি হতে পারে?

আপনি যে ব্যাপারে সব গেল সব গেল বলে মাতম করছেন, আপনার শত্রু বাম পাড়ার লোকজনও সব গেল বলে মাতম করছেন। মোল্লারা শেখ হাসিনাকে বিভ্রান্ত করছে বলেও বাতচিত শুরু হো গিয়া।

পুরো প্রোগ্রামের ভিডিও আবার দেখুন, রাষ্ট্র বাধ্য হয়েছে আলেমদেরকে স্বীকৃতি দিয়েছে, আমি অন্তত তাই বুঝতেছি।

ডান কিংবা বাম ব্লকের মাতম ভোট নিয়ে কওমিকে ইউজ করার ব্যার্থতার গ্লানি নিয়ে, কওমি নিয়ে নয়।

1 COMMENT

  1. আপনার যুক্তিগুলো যে এতই অসার তাতে আপনাদের জিলাপি বাতাসার হুজুর বলা মোটেই অযৌতিক নয়।

    আপনার লেখার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি। আপনি বলেছেন ৫ই মে তে যারা আপনাদের কান ধরে পিটাইতে পিটাইতে বের করে দেয়েছিলো তারাই আপনাদের একটা কলা,এক বোতল জীবন ব্রান্ডের পানি, আর একটা নোনতা রুটি দিয়ে ডেকে এনেছে বিধায় আপনাদের সন্মান আকাশচুম্বী হয়ে গেছে তাই না?? আকাশচুম্বী নয় আপনারা নর্দমাই পতিত হয়েছেন।
    হেফাজতকে বাংলাদেশের ধর্মপ্রান মুসলিমরা এই ভাবে দেখতে চায়নি। এটা মুসলিমদের পরিচয় নয়। এটা মুনাফিকের পরিচয়।
    নিজেদের জেদ না নিবারনে আত্মতৃপ্তি জন্য আপনারা রক্তের সওদা করতে পারেন,এটাই পরিস্কার হয়ে গেছে শুধু আর কিছু নয়। আওয়ামীলীগ আপনাদেরকে আগেও বলদ মনে করতো এই নেক্কারজনক ঘটনার পর আপনারা তাদের কাছে প্রকৃতপক্ষে আরো নত হয়ে গেলেন। তারা রাজনীতি করে সুতরাং আপনার মাথায় হাগু করে আবার চেটে খেলেও তাদের সন্মানের একটু কমতি হবেনা। কারন তাদের রাজনীতির সংবিধানে সবই জায়েজ। কিন্তু আপনারা কি করলেন। আয়াতে আয়াতে যে আইনগুলো লেখা হয়েছে সেগুলোর প্রতি সঠিক ইনসাফ কি আপনারা করেছেন?? ইসলামের দুষমনের সহিত আতাত!! নরকের নিম্নস্থানেরও যোগ্য আপনারা নন।
    আপনারাই সেই কোরআনের উল্লেখিত পুস্তক বহনকারী গর্দভ।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here