নিজের ও তার পরিবারের কোন ক্ষতি হলে তারজন্য সিইসিকে দায়ি করে পটুয়াখালী-৩ আসনে বিএনপির মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী গোলাম মাওলা রনি প্রধান নির্বাচন কমিশনের কাছে চিঠি প্রেরণ করেছেন। আজ সোমবার তিনি এই চিঠি সিইসি বরাবর ডাক ও ই-মেইল যোগে পাঠান এবং একই সাথে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন।

চিঠিতে তিনি আওয়ামী লীগ ক্যাডারদের দ্বারা নিজ পরিবারের অবরুদ্ধ হওয়াসহ বিএনপির নির্বাচনী অফিসে হামলার অভিযোগ করেন।

তিনি অভিযোগ করেন, নির্বাচনী এলাকায় এসে এক ভীতিকর ও প্রাণসংহারী পরিবেশের মধ্যে অবস্থান করতে হচ্ছে। সেই সাথে এব্যাপারে প্রশাসনের কোন সহযোগিতাও পাচ্ছেন না বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

তিনি আরো উল্লেখ করেন, সিইসির ভাগিনা বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হবেন তবে তাকে যেন এই অবস্থা থেকে উদ্ধার করা হয়, তার বিনিময়ে নিজের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্তের কথাও জানান চিঠিতে।

 

চি‌ঠিটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

মাননীয় জনাব,
আমি নিম্ন স্বাক্ষরকারী পটুয়াখালী-৩ সংসদীয় আসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী। গত ১২ই ডিসেম্বর আমি নির্বাচন উপলক্ষে সপরিবারে নির্বাচনী এলাকায় এসে এক ভীতিকর ও প্রান সংহারী পরিবেশের মধ্যে পড়েছি। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা থানা-পুলিশ ও প্রশাসনের সহায়তায় আমাকে সপরিবারে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে তারা ভোটারদেরকে মারধর করছে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে এবং স্থানীয় নির্বাচনী অফিস গুলোতে অগ্নিসংযোগ করছে প্রকাশ্য। তারপর উল্টো মামলা করে পুলিশ দিয়ে লোকজনকে গ্রেফতার করে চলেছে এবং অনেককে এলাকা ছাড়া করেছে।

আমি শত চেস্টা তদ্বির করেও স্থানীয় প্রশাসন এবং উধ্বর্তন প্রশাসনের কোন সাহায্য তো দূরের কথা-ন্যূনতম সাড়া শব্দ পাচ্ছিনা । অবস্থা দৃশ্যে মনে হচ্ছে আপনার নিয়ন্ত্রিত প্রশাসন গলাচিপা-দশমিনার আওয়ামী লীগ প্রার্থী যিনি কিনা আপনার ভাগিনা, তার যোগ সাজশে এই জনপদে আমি ও আমার পরিবারের জন্য অসংখ্য মৃত্যু ফাঁদ পেতে রেখেছে।

আপনার ভাগিনা এবং তার সাঙ্গপাঙ্গরা এলাকাতে ইতিহাসের ভয়াবহতম নির্বাচনী সন্ত্রাস এবং মর্মান্তিক অমানবিক কর্মকাণ্ড শুরু করেছে। তারা গত ১৫ ই ডিসেম্বর আমার স্ত্রীর গাড়িতে ব্যাপকভাবে ভাঙচুর করেছে এবং গাড়ির মধ্যে থাকা দশ বারোজন নারীকে লাঞ্ছিত করেছে। পুলিশ কোন সাহায্য তো করেইনি বরং উল্টো হুমকী দামকী দিয়ে আমার স্ত্রী সহ অন্যান্য মহিলাকে থানা থেকে বের করে দিয়াছে।

জনাব সিইসি-
আপনার কথা বিশ্বাস করে আমার স্ত্রীর লন্ডন প্রবাসী বোন-ভগ্নিপতি ও কিশোরী কন্যা ও বালক পুত্রকে নিয়ে নির্বাচন করতে এসেছিল। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রতিদিন পালা করে আমার বাড়ীর সামনে এসে তান্ডব চালায়-অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে এবং হুমকী ধামকী দিয়ে থাকে যার কারণে আমার পরিবারের সবাই অবরুদ্ধ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছি এবং মৃত্যুভয়ে কাতরাচ্ছি।

আপনি যদি চান যে,আপনার ভাগিনা বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হবেন তবে আমাকে এই অবস্থা থেকে উদ্ধার করুন। আমি আমার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে ইচ্ছুক। আমার ও আমার পরিবারের যদি কিছু হয় তবে ব্যক্তিগত ভাবে আপনি ও আপনার ভাগিনা দায়ী থাকবেন।

 

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here