কুষ্টিয়ার এসপি এস এম তানভীর আরাফাত কর্তৃক ‌হাত ভেঙে দেওয়ার হুমকিকে ‘সরকারি পোশাকে গণবিরোধী মাস্তানি’ বলে অভিহিত করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং তাকে বরখাস্তের দাবি জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

শুক্রবার হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

মাওলানা আজিজুল হক বলেন, ‘কুষ্টিয়ার এসপির তথাকথিত মৌলবাদের ধোঁয়া তুলে ‌হাত ভেঙে দেওয়ার হুমকি সরকারি পোশাকে গণবিরোধী মাস্তানি।’ তিনি বলেন, ভাস্কর্য ভাঙার মতো স্যাবোটাজ ঘটিয়ে আলেম-ওলামার ওপর দায় চাপিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটার চেষ্টা চলছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘পুলিশ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী বা জনগণের সেবক। জনগণের নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় তারা নিয়োজিত। বিচার করা বা শাস্তি দেওয়া পুলিশের দায়িত্ব নয়। পুলিশের দায়িত্ব অপরাধ ঠেকানো এবং অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আদালতে বিচারপ্রক্রিয়ায় পাঠানো। কিন্তু পুলিশ কোনো অপরাধীর হাত ভেঙে দিতে পারে না, কিংবা কোনো অপরাধীকে বিনা বিচারে জেল খাটাতেও পারে না। সরকারের কাছে আমরা অবিলম্বে ওই এসপিকে বরখাস্ত করার আহ্বান জানাই।’

উল্লেখ্য, কুষ্টিয়ায় বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় ২১ ডিসেম্বর কুষ্টিয়ার কুমারখালীর  কয়া মহাবিদ্যালয়ে এক প্রতিবাদ সভায় পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত বক্তৃতা করেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘এক. উল্টাপাল্টা করবা হাত ভেঙে দেব, জেল খাটতে হবে। দুই. একেবারে চুপ করে থাকবেন, দেশের স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস নিয়ে কোনো প্রশ্ন করতে পারবেন না। তিন. আপনার যদি বাংলাদেশ পছন্দ না হয়, তাহলে ইউ আর ওয়েলকাম টু গো ইউর প্যায়ারা পাকিস্তান।’ এছাড়াও তিনি তার বক্তব্যে আলেম-ওলামদের বিষোদ্গার করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here