ভেঙ্গে যাওয়ার দীর্ঘ আড়াই বছর পরেও পুনরায় নির্মাণ করা হয়নি কুমিল্লার দাউদকান্দি, মেঘনা, তিতাস, উপজেলার আঞ্চলিক সড়কের দাউদকান্দি পৌরসদর কে.ডি.সি ও কদমতলী নদীর উপর বিধ্বস্ত সেতুটি।

ফলে এ পথে যাতায়াতকারী ৩ উপজেলার হাজার হাজার মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেতুটি নির্মাণের ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি বলে অভিযাগ করেন এলাকাবাসী।

কদমতলী গ্রামের রাশেদুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, দাউদকান্দি হাইস্কুলের সদস্য সেলিম সরকার, কাউছার আহমেদ, সোহেল রানা জানান, ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে ইট বোঝাই ট্রাক্টর পারাপারের সময় এ সেতুটি ভেঙ্গে যায়। এতে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিছিন্ন হয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে ট্রাক্টর চালক খোকন মারা যায়। এ সময় থেকে সেতু দুই পাশে বাঁশের সাঁকো তৈরি করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাড়াপার হতে হচ্ছে ৩ উপজেলাবাসীকে।

দাউদকান্দি উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস ছালাম জানান, এই সড়ক দিয়ে বাহেরচর, ভাজরা, বটতলী, হাসনাবাদ, নন্দনপুর, মোহনপুর, ভিটিকান্দি, মজিদপুর, জগদপুর, আলীপুরসহ প্রায় ৩ উপজেলার প্রতিদিন হাজার হাজার লোকজন ও স্কুলকলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা যাতায়াত করে থাকেন। কিন্তু সেতুটি নির্মাণের অভাবে গ্রামবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এলাকার উৎপাদিত কৃষি পণ্য সরবরাহে চরম বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে কৃষকদের। গ্রামবাসীর সঙ্গে কথা বললে তারাও তাদের দুর্ভোগের কথা জানান।

উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আনোয়ারুল হক জানান, এ সেতুটি নির্মাণের জন্য টেন্ডার হয়েছে। আমরা চিঠি দিয়েছি, শীঘ্রই কাজ শুরু হবে। সেতুটি নির্মাণের ব্যাপারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। আশা করি দ্রুত সেতুটি নির্মাণ হবে।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here