বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান, আমীরে শরীয়ত মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী ও মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী আজ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইসলামে ছবির ব্যপারে শরঈ হুকুম হলো শরিয়ত সম্মত ওজর ছাড়া ছবি তোলা জায়েয নেই। এমতাবস্থায় মানুষ বা কোন প্রানীর মূর্তি বা ভাস্কর্য তৈরী ও স্থাপন না জায়েজ হওয়ার মধ্যেও কোন সন্ধেহ নেই।

ইসলামের শুরু থেকে অদ্যাবধি কোন হক্কানী আলেম কখনো মূর্তির সমর্থন দিয়েছেন তার প্রমান নেই। মূর্তির বিরুদ্ধে নবী-রাসূল ও অলী-আউলিয়াগণ সংগ্রাম করে গেছেন। যে বা যারা মূর্তির বৈধতা দেয়ার অপচেষ্টায় বিভিন্ন অপব্যখ্যা দিচ্ছে তারা হক্কানী আলেম হতে পারে না।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, বাংলাদেশ শতকরা ৯০ ভাগ মুসলমানদের দেশ, এ দেশকে মুর্তি ও রামরাজ্য বনানোর ষড়যন্ত্র তাওহিদী জনতা বরদাশত করবে না। ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপন ইসলাম ও মুসলমানদের ধর্মীয় ঐতিহ্য পরিপন্থী ও বিধর্মীদের কাজ । বিজাতীয় সভ্যতা-সংস্কৃতি চাপিয়ে দিলে দেশের ঈমানদার জনতা রাজপথে আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়বে। ধর্মপ্রাণ জনতা কারো হুমকি-ধমকি আর রক্ত চক্ষুকে ভয় পায় না। ঈমান-আকিদা ও ইসলামী ঐতিহ্য রক্ষায় লাখো মু‘মিন প্রয়োজনে জীবন দিতেও প্রস্তুত রয়েছে, ইনশাআল্লাহ।
নেতৃদ্বয় ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপনের কর্মসূচি পরিহার করতে সরকারের প্রতি আহবান জানান।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here