দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সদ্য ঘোষিত কমিটি নিয়ে দৈনিক ‘আমাদের সময়’ পত্রিকার প্রতিবেদন ডাহামিথ্যে। বাস্তবতার সাথে এই প্রতিবেদনের কোন মিল নেই বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী

তিনি বলেন, চিহ্নিত কুচক্রী মহলের প্ররোচনায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে মিথ্যায় ভরপুর এ প্রতিবেদন করেছে পত্রিকাটি। নির্জলা মিথ্যাচার করে করা এই প্রতিবেদন দেশবাসী ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে।

আজ ২২ নভেম্বর রবিবার সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন, হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন,আমীরে হেফাজত আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর কোন আত্মীয় স্বজন হেফাজতের সদ্য ঘোষিত কমিটির কোন পদে নেই। আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর আপন দুই ভাইয়ের কেহ-ই হেফাজতের কমিটিতে নেই। ছেলে ও ভাতিজারা কেহ হেফাজতের কমিটিতে নেই। এমনিভাবে আল্লামা বাবুনগরীর আরো বহু আত্মীয় স্বজ কমিটিতে স্থান পাননি। আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর পরিবার উচ্চ মর্যাদা সম্পন্ন একটি ঐতিহ্যবাহী ইলমি পরিবার। ঐতিহ্যবাহী এ পরিবারের সদস্যদের রাজনৈতিক কোন অভিলাষ নেই। সুতরাং হেফাজতের কমিটি ও আল্লামা বাবুনগরীর আত্মীয়স্বজনকে ঘিরে আমাদের সময় পত্রিকার রিপোর্ট সম্পূর্ণ মিথ্যা,বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমূলক। আমরা এমন ডাহামিথ্যে প্রতিবেদনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

জাকারিয়া নোমান বলেন, জামায়াত বিএনপি নয় বরং হেফাজতের কমিটিতে দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম স্থান পেয়েছেন। জামায়াত বিএনপির কেহ হেফাজতের কমিটিতে স্থান পায়নি। দেশের বড় বড় মুফতী, মুহাদ্দিস, মাদরাসার মোহতামীম,মসজিদের খতীবগণ হেফাজতের কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের সুচিন্তিত মতামত ও ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে হেফাজতের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এককভাবে কিছু করা হয়নি। সর্বজন শ্রদ্ধেয়, সৎ,যোগ্য, কর্মঠ ও আমানতদার নেতৃবৃন্দ হেফাজতের কমিটিতে স্থান পাওয়ায় হেফাজতের নব গঠিত কমিটি দেশবিদেশে সকলের নিকট আস্থা ও গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে। যে সব হলুদ মিডিয়া হেফাজতের কমিটিতে জামাত বিএনপির সংশ্লিষ্টতা খোঁজছে তারা মূলত চিহ্নিত কুচক্রী মহলের ইন্দনে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে নির্জলা মিথ্যাচার করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। গুটিকয়েক ষড়যন্ত্রকারীদের এসব মিথ্যাচার জাতী কখনো বিশ্বাস করবে না।

হেফাজতে ইসলাম অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং সেই উসুল বা নীতির উপরই আছে। আল্লামা আহমদ শফী সাহেব রহ. এর জীবদ্দশায় হেফাজত যেমন ছিলো এখনো তেমনি আছে। হেফাজত অতীতেও কোন রাজনৈতিক দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করেনি,বর্তমানেও করছে না ভবিষ্যতেও করবেও না। ইসলাম, মুসলমান, দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব নিয়েই হেফাজতে ইসলাম কাজ করে যাচ্ছে। রাজনৈতিক দলের সাথে হেফাজতের কমিটির সম্পৃক্ততার ভূয়া সুর তুলে কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে। যা কখনো বাস্তবায়ন হবে না, ইনশাআল্লাহ।

হেফাজতে ইসলাম লক্ষ কোটি মুমিন মুসলমান ও তৌহিদি জনতার প্রাণের সংগঠন। সুতরাং হেফাজতে ইসলাম নিয়ে সকল অপপ্রচার,হলুদ মিডিয়ার মিথ্যাচার সম্পর্কে সকলকেই সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে এবং সকল মিথ্যাচারে সমুচিত জবাব দিতে হবে।

 

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here