শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহমতুল্লাহি আলাইহি ছিলেন মুসলিম বিশ্বের আধ্যাত্মিক ও ধর্মীয় অভিভাবক। তিনি ছিলেন সর্বজন শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিত্ব। ইসলাম ও মুসলিম উম্মাহর জন্য তিনি যে খেদমত করে গেছেন চিরদিন স্মরনীয় হয়ে থাকবে। তিনি পুরো জীবন কোরআন-হাদিসের খেদমত করেছেন। দীর্ঘ ৮০ বছর শিক্ষকতা মহান পেশায় ব্রত ছিলেন। তার অবদান জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে।
আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সংস্থা বাংলাদেশের উদ্যোগে আকাবিরে দেওবন্দ ও আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা এসব কথা বলেন।
আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সংস্থা বাংলাদেশ উদ্যোগে রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমস্থ ইসলামিক ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে আজ ২৩ অক্টোবর, রোজ শুক্রবার বিকেল ৩ ঘটিকায় আকাবিরে দেওবন্দ ও শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সংস্থা বাংলাদেশের সভাপতি ও বাংলাদেশ বেতারের ক্বারী হাফেজ মাওলানা ক্বারী আবুল হোসাইনের সভাপত্বিতে ও সংস্থার মহাসচিব সাদ সাইফুল্লাহ মাদানীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়।
বক্তব্য রাখেন মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মাওলানা ওমর ফারুক সন্দ্বীপী, মাওলানা মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মাওলানা গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম, মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী,মুফতি সাখাওয়াত হোসাইন রাজি, মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম, মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী, মাওলানা সাইফুল ইসলাম(আহ্বান শিল্পীগোষ্ঠী) মাওলানা কাওসার আহমদ সুহাইল ও ছাত্রনেতা নুরুজ্জামান নেজামী প্রমুখ। কোরআন পাক থেকে তেলাওয়াত করেন আন্তর্জাতিক কারী জহিরুল ইসলাম, বিশ্বজয়ী হাফেজ জাকারিয়া ও হাফেজ তারেক জামিল।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here