নাটোরের আলোচিত টিকটকার বহুরূপী রূপ ওরফে সুফিয়া বেগম রূপা। ছবি : সংগৃহীত

পুরুষ সেজে মেয়েদের প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে সমকামিতায় বাধ্য করা নাটোরের আলোচিত বহুরূপী নারী রূপ ওরফে সুফিয়া বেগম রূপাকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে নাটোর শহরের উপরবাজার এলাকার বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

নাটোর সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মতিন জানান, রূপা তারই ছোট বোনের ননদ সাদিয়া ইসলাম মৌকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এই জগন্য কাজে বাধ্য করেন। একপর্যায়ে গত ২১ আগস্টে উভয়ে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়। তিন দিন পর ২৪ আগস্ট মৌ- এর বাড়িতে ফিরেন তারা। ওই দিনই রূপার বাসায় মৌ ও রূপা দুজনকেই বিষ পান করা অবস্থায় উদ্ধার করেন পরিবারের লোকেরা। তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে মারা যান মৌ। সুস্থ হয়ে নিরুদ্দেশ হন রূপা।

এ ঘটনায় মৌয়ের মা হত্যার অভিযোগ এনে সুফিয়া বেগম রূপাসহ চারজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, রূপাকে গ্রেপ্তারের পরই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রূপার বাবা নাটোর শহরের ভবানীগঞ্জ এলাকার পান বিক্রেতা রুবেল হোসেন। তিনি জানান, তিনি লেখাপড়া জানেন না। এসব টিকটক তিনি বোঝেন না। মেয়ের সমকামিতা সম্পর্কেও তিনি অবগত নন।

তবে প্রতারণার শিকার তরুণীরা জানান, শুধু সমকামিতায় বাধ্য করা নয়, রূপা তাঁদের কাছ থেকে নিয়মিত টাকাও হাতিয়ে নিতেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here