হাসিব ইমতিয়াজ


একেবারে ছোট্টকালে, একদিন নির্বাচনী পোষ্টার লাগাতে গিয়ে-ফিকে অন্ধকারে ঝাপসা একটি ছবি চোখে পড়ে। তখনই হৃদয়ে আঁকা হয়ে যায়। উস্তাদদের মুখে উনার আপোষহীনতার গল্প শুনি। মুগ্ধ হই। সেই থেকেই ভালোলাগা। একটু একটু ভালোবাসা।

তার অনেকদিন পর। কাছ থেকে তাঁকে দেখলাম। ভয় এবং ভালোবাসা মেশানো দৃষ্টিতে। হাসিমাখা মুখ। উজ্জ্বল চেহারা। ভাঙ্গা ভাঙ্গা স্বরে প্রতিবাদের দীপ্ত হুংকার। চেতনায় ঝড় তোলে। নিমিষেই রক্তে আগুন ধরিয়ে দেয়। আমার চোখে তখন শ্রদ্ধা, ভালোবাসা আর বিস্ময়। বুকে দ্রোহের আগুন। একজন মানুষ, একজন রাহবার! মুফতী আমিনী রহ.। সেই থেকেই, দ্রোহের একটি ছোট্ট অগ্নিশিখা-জ্বলছে চেতনার আঁতুড়ঘরে।

গত কয়েক বছর ধরে ইসলামী আন্দোলন ও রাজনীতির বেসামাল অবস্থা। বারবার হোঁচট খাওয়া মুফতী আমিনীর শূন্যতাকে আরো প্রকট করে তুলেছে। দিন যতো গড়াবে, মুফতী আমিনী ততই প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠবেন-আমাদের সময়ে, কর্মপন্থায়। আমরা সঠিক সময়ে, সঠিকভাবে সেটা উপলব্ধি করতে পারবো কিনা সেটাই এখন বড় বিষয়। অন্যথায় আমাদের সামনে যে নানাবিধ সংকট, এর নিরসনে কোন ভূমিকা তো রাখতেই পারবো না; বরং সংকট আরো বাড়বে। অনিশ্চিত এক সংঘাতের দিকে এগিয়ে যাবে মানুষ, সমাজ এবং রাষ্ট্র। হুমকিতে পড়বে আমাদের অস্তিত্ব, পরিচয়। আমাদের অবস্থা তো এমন, যারা সময়ের সঠিক অবস্থা উপলব্ধি করে সামনে এগিয়ে আসে, তাদেরকে ভুল বুঝে দূরে সরিয়ে রাখি। অবহেলা করি। মুফতী আমিনীর জীবদ্দশায় যেমনটা হয়েছিল। তাইতো বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেও আমরা হেরে যাই। হেরে যেতে হয় আমাদের।
উনাকে ঘিরে আমার অজস্র স্বপ্ন। সেইসব স্বপ্ন ভাষা পাওয়ার আগেই উনি চলে গেলেন- না ফেরার দেশে। আর আসবেন না কোনদিন। স্বপ্ন আর দ্রোহের কথা বলবেন না হাত উঁচিয়ে। তর্জনীর ইশারায় হেলিয়ে দিবেন না জালিমের মসনদ। শেষরাতে, আরশ কাঁপিয়ে কাঁদবেন না আর। ভাবলেই বিষাদে ছেঁয়ে যায় মন। চারিদিকে শুধুই শূন্যতা। নেই-নেই হাহাকার। বুকের ভেতর চুপসে থাকা অশ্রুজল দীর্ঘশ্বাসের মতো বাতাসে মিলিয়ে যায়।
স্মৃতির ক্যানভাসে দ্রোহের ছেঁড়া-ছেঁড়া দৃশ্যকণা। ঘুমন্ত সত্ত্বাকে জাগিয়ে দিতে—তীব্র আঘাতে কড়া নাড়ে চেতনার জানালায়। সাহসের সংগীতে মুখরিত আকাশ দেখে মনে হয়, তিনি আছেন। বিজয়ের শপথে উজ্জীবিত তারুণ্যের মিছিলে। শাহাদাতের চেতনায় উদ্দীপ্ত স্লোগানে। জালিমের বিরুদ্ধে বিক্ষোভরত জনতার কোলাহলে। হাদীসের সুমধুর সুরে কিংবা আমাদের নীরব কান্নায়―তিনি বেঁচে থাকবেন। অনেকদিন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here