মুসলিম জাতির শান্তি ও মুক্তি কামনা করে দোয়ার মাধ্যমে শেষ হলো আলমী শুরা আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমা। টঙ্গীর তুরাগ তীরে গত তিন দিন ধরে চলছিল এই ইজতেমা।

রোববার বেলা ১১টা ১০ মিনিটে মোনাজাত শুরু হয়ে শেষ হয় ১১টা ৪০ মিনিটে।

মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল জামে মসজিদের খতিব ও তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আহমেদ।

মোনাজাতে লাখ লাখ মুসল্লি ‘আমিন আমিন’ বলে মুখর করে তোলেন টঙ্গীর তুরাগ নদের তীর সহ আশপাশ। কনকনে শীত ও হিমেল হাওয়া উপেক্ষা করে তুরাগতীরে সমবেত হয়ে চোখের জলে মুসল্লিরা দেশ জাতি এবং মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং সমৃদ্ধি কামনা করেন। নিজেদের ভুলের জন্য ক্ষমা চান অকাতরে। আল্লাহর রহমত কামনায় ব্যাকুল হয়ে ওঠেন তারা।

মুসল্লিদের ভিড়ে ইজতেমা ময়দানে তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না। ভেতরে ঠাঁই না পেয়ে তাদের অবস্থান নিতে হয়েছে বিভিন্ন সড়ক ও আশপাশের এলাকার মাঠে।

আজকের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয় আলমি শুরা তথা ওলামাদের তত্ত্বাবধানে আয়োজিত ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা।

এর আগে ফজরের নামাজের পর শুরু হয় নির্দেশনামূলক বয়ান। ১১টার পর জনসমুদ্রে হঠাৎ নেমে আসে নীরবতা, এরপরই শুরু হয় আখেরি মোনাজাত। কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে আকাশ। নিজেদের গুনাহ মাফের জন্য এবং আল্লাহ পাকের রহমত পেতে থেমে থেমে কাঁদতে থাকেন মুসুল্লিরা। দীর্ঘ মোনাজাতেও তাদের নেই কোন ক্লান্তি। তারা কেবল আল্লাহর দয়া ও অনুগ্রহ চান।

 

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here