শীর্ষস্থানীয় আলেম ও কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ সংস্থা আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলীর ইন্তেকালে দেশের ধর্মীয় অঙ্গনে শোকের ছায়া বিরাজ করছে।

জানাজায় স্থানীয় আলেমরা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ছুটে আসেন হাজারো আলেম ও ছাত্র-জনতা। জানাজার নামাজে অংশ নেন বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।

সোমবার দিনগত রাত পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর আসগর আলী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন আল্লামা আশরাফ আলী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় তার নিজ গ্রাম কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার অলিরবাজারের মাদরাসায় জানাজার পর সেখানেই তাকে দাফন করা হয়।

মাওলানা আশরাফ আলী ছিলেন দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমদের একজন। তিনি বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সিনিয়র সহ-সভাপতি, জামিয়া শারইয়্যাহ মালিবাগের প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদিস এবং কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ সংস্থা আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কো-চেয়ারম্যান পদে আসীন ছিলেন।

শীর্ষ এ আলেমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মুহা. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া দেশের বিভিন্ন ইসলামী সংগঠন ও ধর্মীয় ব্যক্তিরাও গণমাধ্যমে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন।

আল্লামা আহমদ শফীর শোক

দেশের বর্ষীয়ান আলেমেদীন, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলা‌দেশের (বেফাক) সিনিয়র সহসভাপতি ও স‌ম্মি‌লিত কওমী মাদরাসা শিক্ষা‌বোর্ড আলহাইআতুল উলয়ার কো-চেয়ারম্যান, ঢাকা মালিবাগ জামিয়ার প্রিন্সিপাল ও শাইখুল হাদীস আল্লামা আশরাফ আলী ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ ক‌রে‌ছেন দারুল উলূম হাটহাজারীর মহাপ‌রিচালক ও হেফাজতে ইসলামের আমী‌রে আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

গণমাধ্যমে প্রেরিত এক শোকবার্তায় তি‌নি ব‌লেন, আল্লামা আশরাফ আলী (রহ.) দে‌শের একজন শীর্ষ আলেম ছি‌লেন। তার যোগ্যতা ও দক্ষতা তাঁ‌কে সম্মান ও মর্যাদার স‌র্বোচ্চ আস‌নে সমাসীন ক‌রে‌ছিল। এ মহান আলে‌মের মৃত্যু‌তে আমি গভীর শোক প্রকাশ কর‌ছি এবং শোকসন্তপ্ত প‌রিবা‌রের প্রতি সম‌বেদনা জানা‌চ্ছি। মহান রাব্বুল আলামীন তাকে জান্না‌তের স‌র্বোচ্চ স্থান দান করুন।

আল্লামা শফী আরও ব‌লেন, মাওলানা আশরাফ আলী আমার খুব কা‌ছের মানুষ ছি‌লেন।‌ এত বড় ব্যক্তিত্ব হওয়ার পরও তার বিনয় ছি‌লো অনুসরণীয়। আ‌মা‌কে উস্তা‌দের চে‌য়ে বে‌শি সম্মান ও মুহাব্বত কর‌তেন। দে‌শের শীর্ষ দু‌’টি শিক্ষা‌র্বো‌ডে তি‌নি অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে দা‌য়িত্ব পালন ক‌রেছেন। তার মৃত্যু‌তে দে‌শের ইসলামী অঙ্গণ একজন যোগ্য ও দরদী অভিভাবক হারা‌লো। এ শূন্যত‌া কখ‌নো পূরণ হবার নয়।

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর শোক

আল্লামা আশরাফ আলীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ৷

সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক শোকবার্তায় আল্লামা বাবুনগরী বলেন আশরাফ আলী রহ. ইলমে হাদীস ও দ্বীনি শিক্ষার প্রচার-প্রসারে জীবনের শেষ পর্যন্ত হাদীসের মসনদে বসে ইলমপীপাসু তালেবে ইলমদের মাঝে হাদিসে নববীর দরস দিয়েছেন।একাধারে কয়েকটি মাদরাসার শাইখুল হাদীস ছিলেন তিনি।

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তাআলা তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন এবং তাঁর অগণিত ছাত্র,ভক্ত,শুভানুধ্যায়ী সকলকে সবরে-জামিলের তাওফীক দান করুন।

পীর সাহেব চরমোনাই’র শোক ও দোয়া

বরেণ্য আলেমেদ্বীন আল্লামা আশরাফ আলীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই, নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম, মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম।

এক শোক বাণীতে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, মাওলানা আশরাফ আলী ছিলেন দেশের বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন, হাদিস শাস্ত্রের পন্ডিত ও বয়োবৃদ্ধ আলেম। তিনি অসংখ্য মাদরাসায় হাদিসের দরস দিয়েছেন এবং বহুসংখ্যক মাদরাসা প্রতিষ্ঠাতা ও অসংখ্য দীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।

মরহুম আল্লামা আশরাফ আলী দ্বীনকে বিজয়ী আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠার সংগ্রামেও নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন। মরহুমের ইন্তেকালে জাতি একজন নিবেদিতপ্রাণ আলেমেদ্বীনকে হারালো। যার অভাব দীর্ঘদিন অনুভূত হবে।

আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের শোক

সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেম আল্লামা আশরাফ আলীর ইন্তেকালে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

আল্লামা মাসঊদ তার শোকবার্তায় বলেন, মানুষের জন্ম ও মৃত্যু আল্লাহর পক্ষ থেকেই নির্ধারিত। আল্লাহর ইচ্ছাতেই মানুষ তার রবের ডাকে সাড়া দিয়ে চলে যান। আল্লামা আশরাফ আলী (রহ.) আমাদের সময়কার খ্যাতিমান আলেমে দ্বীন ছিলেন। আমি তার ছাত্রত্ব অর্জন করার সৌভাগ্য লাভ করেছিলাম। তিনি দ্বীনের বহুমুখী খেদমত আঞ্জাম দিয়ে গেছেন।

আল্লামা আশরাফ আলী’র ইন্তেকালে জমিয়তের শোক

দেশের বরেণ্য আলেম আল্লামা আশরাফ আলী ইন্তেকালে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’র সভাপতি আল্লামা আব্দুল মু’মিন শায়েখে ইমামবাড়ি ও মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

এক যৌথ শোকবার্তায় জমিয়ত শীর্ষ নেতৃদ্বয় মরহুমের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন ও অনুকরণীয় দৃষ্টান্তসমূহ গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন এবং মহান আল্লাহ’র দরবারে তার রূহের মাগফিরাত ও জান্নাতুল ফিরদাউসের জন্য দোয়া করেন।

শোক বার্তায় জমিয়ত মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী মরহুমের প্রতি বিশেষ শ্রদ্ধার কথা উল্লেখ করে বলেন, হযরতের সঙ্গে ফরিদাবাদ মাদ্রাসায় প্রায় চার বছর দরসের কাজ করেছি। এছাড়া বিগত প্রায় দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়াতে কাজ করে আসছি।

তিনি বলেন, মরহুম হযরতকে অত্যন্ত সুস্থির, ধৈর্যশীল এবং ভিন্নমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হিসেবে দেখেছি। যে কোন বৈঠকে মতামতের ক্ষেত্রে তিনি সবসময় অন্যের মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় নিতেন। হাসিমুখে কথা বলতেন এবং আন্তরিকভাবে সকলকে আপন করে নিতেন। মরহুমের ইন্তিকালে জাতির অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল এবং একজন বিচক্ষণ ও দক্ষ নেতাকে হারালাম আমরা।

আল্লামা মাহমুদুল হাসানের শোক

আল্লামা আশরাফ আলীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন মজলিসে দাওয়াতুল হকের আমির, জামিয়া মাদানিয়া যাত্রাবাড়ী মাদরাসার মুহতামিম মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমুদুল হাসান।

শোক বার্তায় তিনি বলেন, ‘আল্লামা আশরাফ আলী বহু গুণে গুণান্বিত ছিলেন। আমরা যা হারালাম তা পূরণ হবার নয়। আমি তার মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবার, আত্মীয়,স্বজন, তার ছাত্র, মুরিদ এবং শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমাবেদনা জানাচ্ছি।’

মুফতি রুহুল আমীনের শোক

বর্ষীয়ান আলেম শাইখুল হাদিস আল্লামা আশরাফ আলীর ইন্তেকাল গভীর শোক প্রকাশ করেছেন খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশের আমীর ও গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মোহতামিম আল্লামা মুফতি রুহুল আমীন।

শোক বার্তায় মুফতি রুহুল আমীন বলেন, আল্লামা আশরাফ আলী সবার অভিভাবক ছিলেন। যেকোনো বিষয়ে তার সিদ্ধান্ত ছিল যুগান্তকারী। কওমি মাদরাসার সনদের সরকারি স্বীকৃতি, শিক্ষার স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য অক্ষুণ্ণ রাখা, শিক্ষার মান উন্নয়নে তার অনেক অবদান রয়েছে। তার ইন্তেকালে আমরা একজন বিচক্ষণ অভিভাবক হারলাম।

বিবৃতিতে তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেন। আল্লাহ্ তাঁকে জান্নাতুল ফিরদাউসের উচ্চ মাকাম দান করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here