মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিশংসিত হবেন কি-না তা নিয়ে ভোটাভুটির জন্য প্রস্তুত মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ।বুধবার রাতে এ ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে।

মার্কিন নিম্মকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ ডেমোক্রেটদের হাতে থাকায় মোটামুটি নিশ্চিত ভোটের ফল ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যাচ্ছে। তবে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় সেখানে ট্রাম্পের অভিশংসন আটকে যেতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন।

ট্রাম্প তৃতীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিযুক্ত হবেন।এর আগে ১৯৯৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ও ১৮৬৮ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট এন্ড্রু জনসনের বিরুদ্ধেও অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। দেশটির সংবিধানে বড় ধরনের অপরাধ, ঘুষ, রাষ্ট্রদ্রোহীতা ও দুষ্কর্ম করলে অভিশংসন করা হয়। তবে এখন পর্যন্ত কোনো রাষ্ট্রপতিকে অভিশংসনের মাধ্যমে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হয়নি।

এদিকে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসনের ওপর ভোটাভুটি হওয়ার আগে ওই পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির কাছে কড়া ভাষায় চিঠি লিখেছেন ট্রাম্প।

ছয় পৃষ্ঠার ওই চিঠিতে তিনি অভিশংসন প্রক্রিয়ার তীব্র নিন্দা জানান এবং ‘আমেরিকার গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য যুদ্ধ ঘোষণার জন্য পেলোসিকে অভিযুক্ত করেন।

ট্রাম্প মঙ্গলবার পেলোসির কাছে পাঠানো চিঠিতে লিখেছেন– আপনি অভিশংসন নামক নোংরা শব্দটিকে গুরুত্বহীন করে ফেলেছেন।

ট্রাম্প মঙ্গলবার পেলোসিকে লেখা চিঠিতে দাবি করেন, এই বানোয়াট অভিশংসন প্রক্রিয়ায় শুরু থেকেই সাংবিধানিক আইনি প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করা হয়নি।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here