দারুল উলুম দেওবন্দের সহস্রাধিক ছাত্র জামিয়া মিল্লিয়া ইসলামিয়া ছাত্রদের উপর জুলুম নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিপক্ষে বিক্ষোভ করেছেন। গতকাল আসরের নামাজের পর দেওবন্দের আজমী মনজিলের সামনে  এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভের খবর শুনতেই প্রশাসনের লোকজন মাদরাসায় উপস্থিত হয়। তখন ছাত্ররা নাগরিকত্ব বিল এর বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে মাদ্রাসার ক্যাম্পাস মুখরিত করে তোলেন।

এসময় মাদ্রাসার চারপাশে বিপুল পরিমাণে পুলিশ নিয়োগ করা হয়।

এদিকে বিক্ষোভের আগুন  ক্রমশই ছড়িয়ে পড়ছে সারা ভারতে। নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে প্রথমে সহিংস হয়ে উঠে আসাম-মেঘালয়সহ ভারতের উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলো। এরপর, সেই আগুন এসে লাগে পশ্চিমবঙ্গে। এখন তা রাজধানী শহর দিল্লি হয়ে ছড়াচ্ছে লখনৌ-আলিগড়সহ অন্যান্য শহরেও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, দিল্লিতে সংঘর্ষের পর দেশজুড়ে রাতভর প্রতিবাদ করেছে শিক্ষার্থীরা। নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে গতকাল বিক্ষোভ শুরু হয়েছে লখনৌ শহরের নাদওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে।

এনডিটিভি জানায়, আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আয়োজিত সংহতি মিছিলের পর সংঘর্ষ বাঁধে পুলিশের সঙ্গে। গত সন্ধ্যায় দিল্লিতে সংঘর্ষের পর মধ্যরাতেই প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠে হায়দরাবাদের মওলানা আজাদ উর্দু বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

এছাড়াও, জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আহ্বানে দিল্লির পুলিশ সদর দপ্তরের বাইরে কয়েকশ মানুষ সমবেত হয়ে বিক্ষোভ করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here