ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে অনশনে বসছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী ও সিপিএম নেতা পিনারাই বিজয়ন। কেরালা সিপিএম সূত্রে খবর, আগামীকাল (সোমবার) মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি দলীয় নেতা ও বেশকিছু অ-বিজেপি জাতীয় দলের নেতৃত্ব তিরুবনন্তপুরমের পালায়মের শহিদ মিনারের কাছে অনশনে বসবেন।

কেরালা সিপিএম বলছে,  নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করতে গিয়ে কোনও ধংসাত্মক, প্ররোচনামূলক কাজ করা যাবে না। অনশনই একমাত্র বিজেপিকে আটকানোর পথ।

সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির এক সদস্য বলেন,  পিনারাইয়ের ওই অনশন কর্মসূচি কতটা কার্যকর হয় তা দেখেই দল বিভিন্ন রাজ্যে প্রয়োজনে অনশনে নামবে। কেরালার ওই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সমস্ত অ-বিজেপি মানুষজন।

সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হওয়ার পরেই মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন সাফ জানিয়েছিলেন, কেরালায় ওই আইন কার্যকর করতে দেওয়া হবে না। তাঁর অভিযোগ, এই আইন আসলে সঙ্ঘ পরিবারের অ্যাজেন্ডা মেনে ‘হিন্দুরাষ্ট্র’ তৈরির ষড়যন্ত্র মাত্র।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি বলেন, ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন আসলে  ভারতীয় সংবিধানের সাম্য ও ধর্মনিরপেক্ষতার বৈশিষ্ট্যকে গলাটিপে হত্যা করছে। কেরালা ঐক্যবদ্ধভাবে ওই আইনের বিরোধিতা করবে।’

মুখ্যমন্ত্রীর অনশন কর্মসূচিতে কেবলমাত্র রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা নয়, এতে সংস্কৃতি ও সাহিত্য জগতের মতো একাধিক ক্ষেত্রের উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্বরা উপস্থিত থাকবেন।

কেরালার বিরোধী দলনেতা রমেশ চেনিথালা বলেন, তিনি ওই আইনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হবেন। একইসঙ্গে অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে অনশনেও বসবেন। আমরা বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করব। ওঁরা আরএসএসের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে চাচ্ছে। কিছুতেই তাঁদের উদ্দেশ্য সফল হতে দেবো না বলেও রমেশ চেনিথালা মন্তব্য করেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here