ভারতে নাগরিকত্ব আইন পাশের প্রতিবাদে দিল্লিতে উত্তাল বিক্ষোভ থামাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় পুলিশ। বিক্ষোভ দমানোর অজুহাতে জামিয়ার মিল্লিয়ার ভেতর ঢুকে শিক্ষার্থীদের ওপর টিয়ার সেল গ্যাস নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ চালিয়েছে তারা। এমনকি জামিয়ার মসজিদে নামাজরত ছাত্রদের ওপর হামলা চালিয়েছে নির্দয়ভাবে। বহু হতাহতের সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) মাগরিবের পর এ ঘটনা ঘটেছে। খবর এনডিটিভি।

জামিয়া মিল্লিয়ার প্রধান প্রক্টর ওয়াসিম আহমদ বলেন, ‘পুলিশ অনুমতি ছাড়াই জোর করে ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রদের ওপর হামলা চালিয়েছে। বিক্ষোভে আমাদের ছাত্ররা সহিংসতা চালায়নি।’

শিক্ষার্থীদের দাবি, ‘তারা সহিংসতা চালায়নি। তবুও পুলিশ তাদের আক্রমণ করেছে। নামাজরত ছাত্রদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এবং জামিয়ার লাইব্রেরী থেকে তুলে নিয়ে গেছে আরও কয়েকজনকে।’

একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, একজন সাবেক পুলিশ ছাত্রদের বাঁচাতে চাইলে তাকে নির্দয়ভাবে মারা হয়। এর আগে মসজিদের ইমাম মুসল্লি ছাত্রদের রক্ষা করতে আসলে তাকেও আক্রান্ত করা হয়।

ফার্স্টপোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ক্যাম্পাসে পুলিশের আঘাতে আহত হয়েছে জামিয়া মিল্লিয়ার ৩৫ শিক্ষার্থী, দিল্লির হাসপাতালে ভর্তি কারানো হয়েছে ১১ জনকে।’

উল্লেখ্য, জামিয়া মিল্লিয়ার কয়েকজন পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে  বলেও খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে একজনের নাম শাকির বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি ভাইরাল হয়েছে।

No photo description available.

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here