নাগরিকত্ব বিলের (সিএবি) প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে ভারত। বিভিন্ন রাজ্যে বিক্ষোভ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ আর হাওড়াতে বিক্ষোভের সময়ে বেশ কয়েকটি ট্রেন আর দুটি রেল স্টেশনে ভাঙচুর করা হয়। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় বাস। উলুবেড়িয়া স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকটি ট্রেনে হামলা করায় হয়। তারপরে দুটি স্টেশনের সামনেই আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল। ফলে হাওড়া থেকে খড়গপুর ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া বেলডাঙ্গা স্টেশনেও ভাঙচুর চলে। ওই এলাকার কয়েকটি বাস আর গাড়িতেও ভাঙচুর চালানোর পরে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। বিক্ষোভের সময় পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় বিজেপির এক রাজ্যস্তরের নেতা আক্রান্ত হন। উত্তরপ্রদেশের আলিগড়েও শুক্রবার ছাত্র আর শিক্ষকরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। তারা নাগরিকত্ব আইনের সংশোধনী প্রত্যাহারের দাবি তুলেছেন।

উত্তাল ভারত, ট্রেনে আগুন-ভাঙচুর

উলুবেড়িয়া স্টেশনে রেলপথ অবরোধ। ছবি: পিটিআই

অপরদিকে মুসলমান এবং প্রতিবেশী তিন দেশের সংখ্যালঘু মানুষদের নাগরিকত্ব দিতে দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাও বিক্ষোভ করে। এসময় ছাত্রদের ওপরে লাঠি চার্জ এবং কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে গোয়াতেও বিক্ষোভ হয়েছে। আসামেও হয়েছে ব্যাপক বিক্ষোভ। সেখানে কারফিউ ভেঙ্গে রাস্তায় নেমে আসে মানুষ। এতে পুলিশের গুলিতে দুজন মারা যায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেছেন। বৈঠকের শেষে তিনি আবেদন জানিয়েছেন যাতে মানুষ গণতান্ত্রিক পথে, শান্তিপূর্ণভাবে তাদের প্রতিবাদ জানান।

এদিকে এরই মধ্যে আসামের গুয়াহাটিতে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীর যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল, তা বাতিল হয়েছে।

উত্তাল ভারত, ট্রেনে আগুন-ভাঙচুর

পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ। ছবি: বিবিসি

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here