মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি রোহিঙ্গা গণহত্যায় নীরব থেকে দায় এড়ানোর চেষ্টা করেছেন প্রতিনিয়ত। গণহত্যার দায়ে আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (আইসিজে) দেশের হয়ে আইনি লড়াইয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি।

তবে তার এই নীরবতার দায় এখন নিতে চাচ্ছেন না মিয়ানমারের প্রবাসী নাগরিকরাও। মঙ্গলবার হেগের পিস প্যালেসে যখন রোহিঙ্গা গণহত্যার বিচার শুরু হয় তখন আদালতের বাইরে সমাবেশ করেন বার্মিজরা। তারাও মেনে নিতে পারছেন না গণহত্যার এই দায়।

দ্য হেগে মামলার শুনানির সময় আদালতের বাইরে উপস্থিত সু চির সমর্থক মোয়ে মোয়ে বলেন, মিয়ানমারে যা ঘটছে সে ব্যাপারে প্রবাসী নাগরিকদের মিথ্যা তথ্য জানানো হয়েছে। সামরিক স্বৈরশাসকরা পুরো বার্মায় মানবাধিকার লঙ্ঘন করে আসছেন। এটা বার্মা নয়। এটা বার্মিজ জনগণ কিংবা আমাদের ধর্ম নয়। আমরা বর্ণবাদী নই।

এদিকে, মিয়ানমারের বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুনে সু চির সমর্থনে সমাবেশ করেছেন দেশটির হাজার হাজার মানুষ।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে শত শত রোহিঙ্গা পাহাড়ের পাদদেশে একত্রিত হয়ে ন্যায় বিচারের দাবিতে স্লোগান দিয়েছেন। এ সময় অনেককে গাম্বিয়া, গাম্বিয়া বলে গলা ফাঠাতে দেখা যায়। এমনকি অনেকে শরণার্থী শিবিরের মসজিদে মসজিদে বিশেষ প্রার্থনায় অংশ নিয়েছেন। অনেকে রোজা রেখেছেন।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here